পিএমইন্ডিয়া

PM's Message

প্রিয় নাগরিকবৃন্দ!

আমাদের ভারতীয় মূল্যবোধ অনুসারে সেবা হলো পরম কর্তব্য- ‘সেবা পরম ধর্ম’।একবছর আগে আপনারা আমাকে সম্মানের সাথে দায়িত্ব দিয়েছেন প্রধান সেবক হিসাবে সেবা করার। আমি প্রতিদিনের প্রতিটি মুহূর্তকে এবং দেহ-আত্মার প্রতিটি কণাকে সম্পূর্ণ ঐকান্তিকতা ও সততার সাথে সেই কাজ করার জন্য উৎসর্গীকৃত করেছি।

আমরা এমন একটা সময়ে দায়িত্ব গ্রহণ করেছি, যখন ভারত নিয়ে আস্থা তলানিতে। লাগামহীন দুর্নীতি আর সিদ্ধান্তহীনতা সরকারকে পঙ্গু করে দিয়েছিল। উর্ধগামী মুদ্রাস্ফীতি আর অর্থনৈতিক নিরাপত্তাহীনতায় অসহায় হয়ে পড়েছিলেন মানুষ। দ্রুত ও নির্ণায়ক পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি হয়ে পড়েছিল।

আমরা এই চ্যালেঞ্জগুলির মোকাবিলায় পদ্ধতিগতভাবে এগিয়েছি। নাগালের বাইরে চলে যাওয়া মূল্যবৃদ্ধি দ্রুত নিয়ন্ত্রনের মধ্যে নিয়ে আসা হয়েছে| স্থিতিশীল ও নীতি অনুসারী সক্রিয় প্রশাসনের উপর দাঁড় করিয়ে ধুঁকতে থাকা অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা হয়েছে। আমাদের মূল্যবান জাতীয় প্রাকৃতিক সম্পদকে পছন্দের কয়েকজনের হাতে তুলে দেবার শিথিল নীতির বদলে স্বচ্ছ কার্যবিধি প্রণয়ন করা হয়েছে| কালো টাকার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ হিসেবে বিশেষ তদন্তকারী গোষ্ঠী বা ‘সিট’ গঠন করা, কঠোর আইন প্রণয়ন করা এবং এক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক স্তরেও ঐকমত্য গড়ে তোলা ইত্যাদি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে| অভিপ্রায় এবং পদক্ষেপ উভয় ক্ষেত্রেই শুদ্ধতার নীতির প্রতি আপোসহীন থাকার মধ্য দিয়ে দুর্নীতিমুক্ত সরকার নিশ্চিত হয়েছে। সহানুভুতি ও পেশাদারিত্বের মেলবন্ধন ও সরকারী অচলাবস্থার প্রাচীরকে ভেঙে দিয়ে ব্যবস্থাপনাকে পরিপুষ্ঠ করার মধ্য দিয়ে কর্মসংস্কৃতিতে তাৎপর্যপূর্ণ পরিবর্তন আনা হয়েছে| টিম ইন্ডিয়া মনোভাব সৃষ্টির মধ্য দিয়ে রাজ্য সরকারগুলিকে জাতির উন্নয়নে করা হয়েছে সমান অংশীদার। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন হলো, সরকারের ওপর আস্থা ফিরিয়ে আনতে আমরা সমর্থ হয়েছি।

অন্ত্যোদয় নীতির দ্বারা চালিত আমাদের সরকার গরীবের প্রতি, প্রান্তিক মানুষের প্রতি এবং যারা অবহেলিত হিসেবে পড়ে আছেন, তাঁদের প্রতি নিবেদিত। আমরা তাঁদের সক্ষম করে তোলার জন্য কাজ করে চলেছি যাতে দারিদ্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধে তাঁরাই সৈনিক হয়ে উঠতে পারেন। অসংখ্য পরিকল্পনা ও কর্মসূচি চালু করা হয়েছে| এরমধ্যে রয়েছে, স্কুল টয়লেট বানানো থেকে শুরু করে আইআইটি, আইআইএম এবং এআইআইএমএস স্থাপন করা; শিশুদের টিকাকরনের উদ্যোগ থেকে শুরু করে জনগণ পরিচালিত স্বচ্ছ ভারত মিশন, শ্রমিকদের ন্যূনতম পেনসন নিশ্চিত করার উদ্যোগ থেকে সাধারন মানুষদের সামাজিক নিরাপত্তা দেওয়ার উদ্যোগ; প্রাকৃতিক কারনে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের প্রতি সরকারের সাহায্য বৃদ্ধির পদক্ষেপ থেকে বিশ্ব বানিজ্য সংস্থায় (ডব্লিও টি ও) তাঁদের স্বার্থ রক্ষার পদক্ষেপ; স্বপ্রত্যয়ন-এর বিধানের মাধ্যমে প্রত্যেককে সক্ষমতা দেওয়ার পদক্ষেপ থেকে ভর্তুকির অর্থ সরাসরি জনগনের ব্যাঙ্ক একাউন্ট–এ জমা করার উদ্যোগ; ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থাকে সার্বজনীন করা থেকে তহবিল প্রাপ্তিতে বঞ্চিত ছোট ব্যবসাগুলোকে তহবিল যোগানোর পদক্ষেপ করা; জমিতে সেচের ব্যবস্থা করা থেকে মা গঙ্গাকে পুনরুজ্জীবিত করা; ২৪x৭ বিদ্যুৎ সরবরাহের দিকে পদক্ষেপ থেকে শুরু করে সারা দেশকে সড়ক ও রেলপথে যুক্ত করা; গৃহহীনদের জন্য গৃহ নির্মাণ থেকে স্মার্ট সিটি বানানো, এবং উত্তর-পূর্ব ভারতকে যুক্ত করা থেকে পূর্ব ভারতের উন্নয়নে প্রাধান্য দেওয়া।

বন্ধুগণ, এটা সবে মাত্র শুরু। আমাদের লক্ষ্য হলো, জীবনের মান, পরিকাঠামো এবং পরিষেবার মধ্যে গুণগত রূপান্তর আনা| আমরা সকলে মিলে আমাদের স্বপ্নের ভারত গড়ে তুলব, যে স্বপ্ন দেখতেন আমাদের স্বাধীনতার যোদ্ধারা। এই লক্ষ্যে, আমি আপনাদের আশীর্বাদ চাই, আর চাই নিরবচ্ছিন্ন সমর্থন।

সর্বদা আপনাদের সেবায়।
জয়হিন্দ!

 
নরেন্দ্র মোদী
PM's Message