পিএমইন্ডিয়া

সাম্প্রতিক সংবাদ

বিষয়টিকে সরাসরি পিআইবি থেকে নেওয়া হয়েছে

স্বচ্ছ ভারত দিবস উদযাপনের অনুষ্ঠানেভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী: স্বচ্ছ ভারত মিশনের সূচনার তৃতীয় বর্ষপূর্তি এবংস্বচ্ছতা হি সেবা পক্ষকালের সমাপ্তি

নয়া দিল্লি: ২অক্টোবর: প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদি সোমবার স্বচ্ছ ভারত দিবস উদযাপনের অনুষ্ঠানেভাষণ দিলেন| এটি ছিল স্বচ্ছ ভারত মিশনের সূচনার তৃতীয় বর্ষপূর্তি এবং “স্বচ্ছতা হিসেবা” পক্ষকালের সমাপ্তি|

তিনি বলেন, দুসরাঅক্টোবর হচ্ছে মহাত্মা গান্ধী ও লাল বাহাদুর শাস্ত্রীর জন্মজয়ন্তী; এবং একই সঙ্গেআমরা স্বচ্ছ ভারতের লক্ষ্যে কতটুকু এগিয়ে যেতে পেরেছি তাও উপলব্ধি করার দিন|

তিন বছর আগেঅনেক সমালোচনার মধ্য দিয়েই যে স্বচ্ছ ভারত অভিযানের সূচনা হয়েছে, তিনি তার উল্লেখকরেন| প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে পথ মহাত্মা গান্ধী দেখিয়ে গিয়েছেন, তা কখনই ভুল হতেপারে না বলে তিনি বিশ্বাস করেন| তিনি বলেন, যদি এক্ষেত্রে কোনো প্রতিকুলতাও থেকেথাকে, তাহলে এর অর্থ এই নয় যে, তা থেকে দূরে সরে যেতে হবে|

প্রধানমন্ত্রীবলেন, মানুষ এখন একবাক্যে পরিচ্ছন্নতার প্রতি তাঁদের আকাঙ্খার প্রকাশ করেন| তিনিউল্লেখ করেন যে, স্বচ্ছতা কখনই নেতা বা সরকারের প্রচেষ্টায় অর্জন করা সম্ভব নয়|বরং তা অর্জন করা সম্ভব হবে শুধুমাত্র সমাজের প্রচেষ্টার মাধ্যমেই| প্রধানমন্ত্রী ‘জন-ভাগিদারি’অর্থাত জনগণের এই অংশগ্রহণকে প্রশংসা করতে হবে বলে উল্লেখ করে বলেন, আজ স্বচ্ছতাঅভিযান এক সামাজিক আন্দোলনে পরিণত হয়েছে| আজ পর্যন্ত যতটুকু সাফল্য এসেছে, তাভারতের ‘স্বচ্ছাগ্রহী’ মানুষেরই অর্জন|

প্রধানমন্ত্রীবলেন, যদি ‘সত্যাগ্রহীদের’ জন্য যদি স্বরাজ অর্জিত হয়ে থাকে, তাহলে শ্রেষ্ঠভারত অর্জিত হবে ‘স্বচ্ছাগ্রহীদের’ জন্য|

শহরগুলোরস্বচ্ছতার রেংকিং-এর উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তা এক ইতিবাচকপ্রতিযোগিতামূলক পরিবেশের জন্ম দিয়েছে| তিনি বলেন, স্বচ্ছতার জন্য ধারণার বিপ্লবেরপ্রয়োজন, আর এই প্রতিযোগিতা স্বচ্ছতার ভাবনা নিয়ে ধারণার মঞ্চ প্রদান করেছে|

“স্বচ্ছতা হিসেবা” পক্ষকালে যারা অবদান রেখেছেন, প্রধানমন্ত্রী তাঁদেরকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন,আরও অনেক কিছু করতে হবে|

প্রধানমন্ত্রীস্বচ্ছতা নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের প্রবন্ধ, চিত্রকলা ও চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতায়বিজয়ীদের পুরস্কৃত করেন এবং ডিজিট্যাল ডিসপ্লে গ্যালারি পরিদর্শন করেন|