পিএমইন্ডিয়া

শ্রী বিশ্বনাথ প্রতাপ সিং

১৯৮৯, ২ ডিসেম্বর থেকে ১৯৯০, ১০ নভেম্বর | (জনতা দল)

শ্রী বিশ্বনাথ প্রতাপ সিং

শ্রী বিশ্বনাথ প্রতাপ সিং-এর জন্ম ১৯৩১-এর ২৫ জুন এলাহাবাদে। রাজা বাহাদুর রামগোপাল সিং-এর পুত্র বিশ্বনাথ প্রতাপের শিক্ষা এলাহাবাদ ও পুণে বিশ্ববিদ্যালয়ে। শ্রীমতী সীতা কুমারীর সঙ্গে তাঁর বিবাহ হয় ১৯৫৫-র ২৫ জুন। বিশ্বনাথ প্রতাপ ছিলেন দুই পুত্রের জনক।

বিশ্বনাথ প্রতাপ সিং ছিলেন এক বিদগ্ধ ব্যক্তিত্বের অধিকারী। এলাহাবাদের কোরাওঁ-তে গোপাল বিদ্যালয়ের (ইন্টারমিডিয়েট কলেজ) তিনি ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা। ১৯৪৭ -৪৮ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন বারাণসীর উদয় প্রতাপ কলেজের ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি। এছাড়াও, এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইউনিয়নের তিনি ছিলেন সহ-সভাপতি। ১৯৫৭ সালে তিনি সক্রিয়ভাবে ভূ -দান আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেন এবং এলাহাবাদের পাশনা গ্রামের একটি সুপ্রতিষ্ঠিত কৃষিক্ষেত্র উৎসর্গ করেন।

রাজনৈতিক জীবনে তিনি ছিলেন অখিল ভারত কংগ্রেস কমিটি, এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৬৯-৭১) এবং উত্তর প্রদেশ বিধানসভা (১৯৬৯-৭১)-এর সদস্য। ১৯৭০ -৭১ সালে তিনি ছিলেন কংগ্রেস পরিষদীয় দলের সচেতক, ১৯৭১-৭৪ লোকসভার সাংসদ, ১৯৭৪-এর অক্টোবর থেকে ১৯৭৬-এর নভেম্বর পর্যন্ত কেন্দ্রীয় বাণিজ্য উপ-মন্ত্রী, ১৯৭৬-এর নভেম্বর থেকে ১৯৭৭-এর মার্চ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী এবং ১৯৮০-র ৩ জানুয়ারি থেকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত লোকসভার সাংসদ। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পদে ছিলেন ১৯৮০ সালের ৯ জুন থেকে ১৯৮২ সালের ২৮ জুন পর্যন্ত। এছাড়াও, উত্তর প্রদেশের বিধান পরিষদের তিনি সদস্য ছিলেন ১৯৮০ সালের ২১ নভেম্বর থেকে ১৯৮১ সালের ১৪ জুন পর্যন্ত। উত্তর প্রদেশ বিধানসভার সদস্য ছিলেন ১৯৮১ -এর ১৫ জুন থেকে ১৯৮৩-র ১৬ জুলাই পর্যন্ত।

১৯৮৩ সালের ২৯ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় বাণিজ্য মন্ত্রী হওয়ার পরে কেন্দ্রীয় সরবরাহ দপ্তরের অতিরিক্ত দায়িত্ব তিনি গ্রহণ করেন ১৯৮৩ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি। তিনি রাজ্যসভার সদস্য নির্বাচিত হন ১৯৮৩ সালের ১৬ জুলাই। উত্তর প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হন ১৯৮৪ সালের ১ সেপ্টেম্বর। ঐ বছরই ৩১ ডিসেম্বর তিনি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন।